1. admin@dailylikonisongbad.com : admin :
  2. mdsohaghasan333@gmail.com : Sohag RAHMAN : Sohag RAHMAN
সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ০২:০৩ পূর্বাহ্ন

সন্ত্রাসী হাফিজ বাহিনী অত্যাচারে,অতিষ্ঠ শালিকা ও রসুলপুরবাসী!

  • প্রকাশের সময় : বুধবার, ১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪
  • ৭৯ বার পঠিত

নিউজ ডেস্ক:

ঘাটাইল উপজেলার রসুলপুর ইউনিয়নের রসুলপুর গ্রামের প্রভাবশালী হাফিজ উদ্দিনের পরিবারের বিরোদ্ধে মাদকব্যবসা, চাঁদাবাজি, জবরদখল সহ নানা অসামাজিক কর্মের সাথে জড়িত থাকার অভিযোগ উঠেছে। এলাকাবাসীর অভিযোগ- হাফিজ উদ্দিনের নেতৃত্বে মধুপুর উপজেলা দক্ষিন শালিকা রসুলপুর ঢলুয়াপাড়া, গর্জনাপাড়া গ্রামের লোকজনদেও অতিষ্ঠ কওে তুলেছে এই পরিবারের লোকজন। হাফিজ উদ্দিনরা সাত ভাই তদের  পরিবারের সদস্য সংখ্যা বেশি, তাই অত্যাচারিত লোকজন তাদের বিরোদ্ধে কথা বলতে ভয় পায়।

গত ০৯/০২/২০২৪ ইং তারিখে রাত্রি ৩ ঘটিকার সময় মহিষমারা ইউনিয়নের ৫ নং ওয়ার্ড শালিকা গ্রামে সন্ত্রাসী হাফিজ উদ্দিনের নেতৃত্বে আনোয়ার হোসেন বাবলু, সাইফুল ইসলাম, মুক্তার আলী গং সহ এদের সন্ত্রাসী হামলায় মোঃ সিদ্দিক, ইউসুফ আলী, সিংহচালা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক মোঃ হিমেল মিয়া, রাহাদুল ইসলাম সাব্বির, গুরুত্বও অবস্থায় আহত হয়ে ময়মনসিংহ মেডিকেল হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে।

গত ২৫ নভেম্বর ২০১৯ সকালে শালিকা বাজারের পাশে ‘গৃহবধু রাইচ এন্ড মশলা মিল’ এর মালিক সিরাজুল ইসলাম কফিলের নিকট  হাফিজের লোকজন চাঁদা দাবি করে চাঁদা না দেওয়ায় ঐদিন বিকালে লিটনের নেতৃত্বে মাজিদুল, সোরহাব ও শরাপত কফিলকে মারপিট করে  আহত করে দোকান লোট করে নিয়ে যায়।
আহত কফিলকে প্রথমে ঘাটাইল উপজেলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে অবস্থার অবনতি দেখে  পরবর্তীতে কর্তব্যরত চিকিৎসক টাঙ্গাইল জেরারেল হাসপাতালে রেফার করে। এই বিষয়টি ঘাটাইল থানায় একটি মামলা দায়ের করেছে হামলা শিকার কফিলের বড় ভাই শহিদুল ইসলাম। ঘটনাটি ঘাটাইল থানার এস আই জহির ঘটনা তদন্ত করেছে।
আয়নাল হকের আলভি ইলেকট্রিক ও হার্ডওয়ার্ডের  দোকানে চুরি হলে চুর ধরা পরলেও হাফিজ বাহিনীর  পৃষ্ঠপোষকতার কারনে এর কোন বিচার হয়নি। এ ঘটনায় আয়নাল হক প্রতিবাদ করলে গত ০৯/০২/২০১৯ ইং তারিখে আয়নালের দোকানে হামলা চালিয়ে মারধর করে  দোকানের মালামাল লোটপাট করে।এ বিষয়ে মধুপুর থানায় আয়নাল বাদী হয়ে হাফিজ বাহিনীর বিরুদ্ধে  একটি মামলা দায়ের করেছে। আদালতে মামলাটির চার্জশিট প্রদান করেছেন তদন্ত কর্মকর্তা।

মহিষমারা  ইউনিয়নের ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি মুছা মিয়া বলেন হাফিজের পরিবার এমন কোন অপকর্ম নাই যা করতে পারেনা। গত ০৫/০৪/২০১৪ সালে আমার কাছে চাঁদা দাবি করলে আমি চাঁদা দিতে অস্বীকার করায় আমার ১২৫ সিসি মোটর সাইকেল পুড়িয়ে দেয় এবং আমাকে মারপিট করে। এই বিষয়েও হাফিজ বাহিনীর বিরুদ্ধে মধুপুর থানায় মুছা মিয়ার স্ত্রী একটি মামলা দায়ের করে।

গত ২৮/১১/২০১৬ সালে শালিকা গ্রামের আব্দুল গফুরের বাড়িতে প্রবেশ করে  আসবাবপত্র ভাংচুর ও লোটপাটের কারনে মধুপুর থানায় গফুর একটি মামলা দায়ের করেছে । জাফর আলী উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা জাফর আলী বলেন সমাজে অস্থিরতা সৃষ্টি করাই তাদের কাজ । এছাড়াও তাদের  রয়েছে সুনির্দিষ্ট মাদক বিক্রয় ও সেবন গ্রুপ। হাফিজের প্রতিবেশি আব্দুল মজিদ বলেন, এদের কথা বলে লাভ নাই, আজ থেকে ৫ বছর আগে আমার ছেলে এ বাজারে  মিল করেছিল। ওদের  চাঁদা না দেওয়ায় মিথ্যা ঘটনায় ফাসিয়ে ২২ হাজার টাকা জরিমানা নিয়েছে হাফিজ।

শালিকা বাজারের ঔষধ ব্যবসায়ী ডা. বারেক সরকার বলেন, পরিবারটি অনেক দোষে দোষী , এদের অপরাধের শেষ নেই। ঢলুয়া গ্রামের হোমিও চিকিৎসক  আব্দুল মালেক বলেন, ওদের ঘটনা বলে শেষ করা যাবে না। জানিনা ওদের  খুঁটির জোর কোথায়  আইনের ফাকফোকর দিয়ে বেরিয়ে এস পুরনো ব্যবসায় নামে।এর প্রতিকার এখনই  হওয়া উচিত।
তথ্য ও সুত্র: পূর্বাকাশ পত্রিকা, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৯ সাল থেকে সংগ্রহিত।

Facebook Comments Box
এই ক্যাটাগরির আরও খবর

নড়াগাতী থানা কর্তৃক ১০০(একশত) পিস ইয়াবা ট্যাবলেট সহ ০১ জন গ্রেফতার ———————————————————— মাদক ব্যবসায়ের সাথে জড়িত মোঃ শফিকুল ইসলাম মোল্যা (৪৪) নামের ০১ জন মাদক কারবারিকে গ্রেফতার করেছে নড়াইল জেলার নড়াগাতী থানা পুলিশ। গ্রেফতারকৃত মোঃ শফিকুল ইসলাম মোল্যা (৪৪) নড়াইল জেলার নড়াগাতী থানাধীন নলামারা গ্রামের মৃত আব্দুল সালাম মোল্যার ছেলে। আজ ১৩ জুলাই’২৪ বিকাল ১৬ঃ৫০ ঘটিকার দিকে নড়াইল জেলার নড়াগাতী থানাধীন পহরডাঙ্গা ইউপির অন্তর্গত চরবল্লাহাটি গ্রামস্থ জনৈক কুদ্দুস শিকদারের ভোগ দখলীয় আবাদি জমির সামনে পাকা রাস্তার উপর হতে তাকে আটক করা হয়। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে নড়াগাতী থানার অফিসার ইনচার্জ জনাব মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান এর তত্ত্বাবধানে এএসআই(নিঃ) ইকবাল হোসেন সঙ্গীয় ফোর্সসহ অভিযান চালিয়ে মোঃ শফিকুল ইসলাম মোল্যা (৪৪) কে গ্রেফতার করে। এ সময় ধৃত আসামির নিকট থেকে অবৈধ মাদকদ্রব্য ১০০ (একশত) পিস ইয়াবা ট্যাবলেট জব্দ করা হয়। এ সংক্রান্তে নড়াগাতী থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে একটি মামলা রুজু করা হয়েছে। আসামিকে বিজ্ঞ আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। নড়াইল জেলার সুযোগ্য পুলিশ সুপার জনাব মোহাঃ মেহেদী হাসান মহোদয়ের নির্দেশনায় মাদকমুক্ত নড়াইল গড়ার লক্ষ্যে জেলা পুলিশ আন্তরিকভাবে কাজ করে যাচ্ছে।

© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২৩ দৈনিক লিখনী সংবাদ
Theme Customized By Shakil IT Park