1. admin@dailylikonisongbad.com : admin :
  2. mdsohaghasan333@gmail.com : Sohag RAHMAN : Sohag RAHMAN
রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ০৯:৪৩ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
হরিপুরে ১২০ গ্রাম গাঁজাসহ গ্রেফতার -১ সাংবাদিক জুয়েল খন্দকারের বিরুদ্ধে কাউন্সিলর সাহেদ ইকবাল বাবুর মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে প্রতিবাদ সভা ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে মুক্তিযোদ্ধা দলের আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত যশোরে র‌্যাব-৬, যশোর ক্যাম্প অভিযান চালিয়ে ৪০০ বোতল ফেন্সিডিল সহ আটক -১ খুলনা হতে দীর্ঘ ৩৫ বছর ধরে পলাতক ০৯ বছরের সাজাপ্রাপ্ত আসামী র‍্যাব -৬ কর্তৃক গ্রেফতার হরিজনদের ওপর হামলার প্রতিবাদে নোয়াখালীতে সমাবেশ ও বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত গোপালগঞ্জ কাশিয়ানী থানা এলাকা হতে ১৯ কেজি ২০০ গ্রাম গাঁজা ও ০১টি মাইক্রোবাস জব্দ করে র‍্যাব -৬ ভাটিয়াপাড়া ক্যাম্প বৈঠক শেষে বেরিয়ে শিক্ষক নেতা বললেন ‘ভালো আলোচনা হয়েছে’ নৈশ প্রহরীকে বেঁধে বাজারে দুর্ধর্ষ ডাকাতি, ১৫ লাখ টাকার মালামাল লুট ঝিকরগাছা রিপোর্টার্স ক্লাবের নির্বাচনে সভাপতি বাবু , সম্পাদক জাফর

কুষ্টিয়ায ৮০টাকা কেজিতে বিক্রয় হচ্ছে তরমুজ

  • প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ১৯ মার্চ, ২০২৪
  • ৪২ বার পঠিত

 

 

মিজানুর রহমান

(কুষ্টিয়া জেলা প্রতিনিধি)

 

কুষ্টিয়ায় ৮০ টাকা কেজিতে তরমুজ বিক্রি হচ্ছে

গরমে একটু তৃষ্ণা মেটাতে এই রমজানে ইফতারের অন্যতম অনুষঙ্গ তরমুজ। রোজা শুরুর পর তরমুজের দামও বাড়ছে। তিন দিনের ব্যবধানে প্রতি কেজি অপরিপক্ক তরমুজের দাম বেড়েছে ২৫ থেকে ৩০ টাকা। খুচরা বাজারে প্রতি কেজি তরমুজ বিক্রি করা হচ্ছে ৮০ টাকায়। অথচ গেলো সপ্তাহে এই তরমুজ ৫০ টাকার মধ্যে পাওয়া যেত।

 

রবিবার (১৭ মার্চ) দুপুরে কুষ্টিয়া পৌর বাজার ও বিভিন্ন বাজার এলাকায় ঘুরে এমন চিত্র দেখা গেছে।

 

হাসান খান নামে এক মেডিকেল চিকিৎসক বলেন, ‘আমরা কয়েকজন ইন্টার্নী চিকিৎসক একসাথে ইফতার করি। রোজা আছি এ জন্য তরমুজ কিনতে এসেছি। কিন্তু অপরিপক্ক তরমুজ ৮০ টাকা কেজি। একটা তরমুজ কেনার বাজেট নেই। যদিও বা এর আগে একটা কিনেছিলাম কিন্তু একেবারেই অপরিপক্ক। এজন্য আজ কিনব না। রোজার আগে যে তরমুজ ৫০টাকা কেজি ছিল, সেই তরমুজ রমজানে ৮০ টাকা কেজি। এটা দুঃখজনক।’

 

তরমুজ ক্রেতা বাবলু মিয়া ও সুজন আলী বলেন, ‘বাসার সবাই রোজায় আছে। ইফতারের জন্য ৮০ টাকা কেজি দরে তরমুজ কিনলাম। তরমুজ এখনও পরিপক্ক না। তবুও কিনলাম।’ তিন কেজি ওজনের একটা তরমুজ তিনি ২৪০ টাকা দিয়ে কিনেছেন।

 

পৌর বাজারের শরিফুল ইসলাম বলেন, ‘৮০ টাকা কেজি দরে ৩২০ টাকা দিয়ে একটা তরমুজ কিনেছিলাম। বাসায় এনে ইফতারের আগে কেটে দেখি অপরিপক্ক। তরমুজের ভিতরে সাদা। স্বাদও ভালো না। বাজারে অপরিপক্ক তরমুজ বাড়তি দামে বিক্রি করা হচ্ছে। এতে আমার মতো অনেকে প্রতারিত হচ্ছে।’

 

নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক আড়ৎদার জানান, আমরা কয়েকদিন আগে বরিশাল থেকে তরমুজ কিনে এনেছি। এক কানি (সাড়ে সাত বিঘা) জমির তরমুজ দুই হাজার পিস হবে এমন আইডিয়ায় কিনেছি সাড়ে ৫ লাখ টাকায়। এরপর তা ট্রলারে ১০ হাজার টাকা এবং ট্রাকে করে ২০ হাজার টাকা ভাড়া দিয়ে কুষ্টিয়ায় এনেছি, তাতে করে তিনশো টাকার একটু বেশি প্রতি পিস কেনা পড়েছে। তবে কেন একটা তরমুজ ৬শ আবার ৮ শ টাকায় বিক্রি হচ্ছে এমন কথা বললে তিনি জানান, গড় তরমুজ কিনতে হয়, তাতে করে কোনটা ৬ কেজি, ৮ কেজি আবার ৩ কেজি দুই কেজিতেও পিস হয়। তাই বিক্রি করতে হয় কেজি দরে।

 

এ বিষয়ে কথা বলার জন্য জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের কুষ্টিয়ার সহকারী পরিচালক সুচন্দন মন্ডল জানান, আসলে বাজার নিয়ন্ত্রণে আমরা কাজ করছি। তবে অপরিপক্ক তরমুজের কেনা এবং বিক্রির সিস্টেমটা নিয়ে একটা জটিলতা রয়েছে। শীঘ্রই আমরা বাজারে অভিযান চালাবো৷

Facebook Comments Box
এই ক্যাটাগরির আরও খবর
© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২৩ দৈনিক লিখনী সংবাদ
Theme Customized By Shakil IT Park